কবিতা – জললীলা

কবিতা - জললীলা

আদ্যনাথ ঘোষ

জোয়ারে একা নামতে নেই
জোয়ার পাগলামী জানে, চোখ ফুলে হয়ে যায় নদী।
শ্রাবণের কান্নার ঢল, সন্নাসী চোখ,
সন্ধ্যামাঠ, নৃত্যপাগল মন।
তবু তার বৃষ্টির উৎসব ভিজে যাবে বর্ষাচোখ
ঠোঁটের আঁচল।

ও মেয়ে তুমি কি সৃষ্টির উৎসব
পলিমাটি বিলাও বর্ষামুখর জললীলা তলায়!

তোমার উছল চোখ
বয়ে আনে তুমুল প্লাবন।
দুচোখের পাতায় দিয়ে যায়
পুণ্যতোয়া, রাঙাদিন, মধুমাখা ভোর।

জলের কার্ণিশ দুচোখে
সব ফেলে দিয়ে যায়
প্রণয়ের মাঠ, কবিতার পঙক্তি, চাঁদধোয়া জোছনা।

ও মেয়ে তুমি যদি নাব্যতা হারাও
সৃষ্টির জমিন হয়ে যাবে ঊষর।

শালগাড়ীয়া, গোডাউন পাড়া, পাবনা ।

“বিনা অনুমতিতে এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ। কেউ যদি অনুমতি ছাড়া লেখা কপি করে ফেসবুক কিংবা অন্য কোন প্লাটফর্মে প্রকাশ করেন, এবং সেই লেখা নিজের বলে চালিয়ে দেন তাহলে সেই ব্যাক্তির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বাধ্য থাকবে
ছাইলিপি ম্যাগাজিন।”

সম্পর্কিত বিভাগ

পোস্টটি শেয়ার করুন

Facebook
WhatsApp
Telegram
নারী আটকায় কিসে?

নারী আটকায় কিসে?

আশিক মাহমুদ রিয়াদনারী পুরুষে আটকায় না, নারী আটকায় অর্থে, বিত্তে, শৌর্যে!নারী কখনোই পৌরষে আটকায় না নারী ছিড়ে, নাড়ি..জন্ম দেয় ফুল। প্রথম কান্নায়, প্রথম শব্দে মা ...
একটি নষ্ট গল্প - [পর্ব-০২]

একটি নষ্ট গল্প – [পর্ব-০২]

আশিক মাহমুদ রিয়াদ (গত পর্বের পর থেকে) [১৮+ সতর্কীকরণ] গল্পটির প্রথম পর্ব পড়তে এখানে ক্লিক করুন অফিসে ঢোকার সাথে সাথে বসের রুমে ডাক পড়ে তার। ...
সাঁঝদুয়ারি (১৮+)

সাঁঝদুয়ারি (১৮+)

 আশিক মাহমুদ রিয়াদ  সন্ধ্যে নামার আগেই গাঢ় অন্ধকারে ডুবে গেছে চারপাশ। বুনো মশার বুন বুন শব্দ। বারান্দায় নামাজ পড়ছেন আব্বা। সুর করে সূরা পড়ছেন। দাদীর ঘরে ...
হেমন্তের সকাল

হেমন্তের সকাল

প্রিয় রহমান আতাউর ভোরের কুয়াশায় আচ্ছন্ন গ্রাম সোনালী ধানক্ষেতের আল ধরে হেঁটে যাই আমি বাবুই পাখিদের দেখি ওদের কিচিরমিচির শব্দ কানে আসে কোথাও বা কাকতাড়ুয়া, ...
অতলের ডায়েরি

অতলের ডায়েরি

অনঞ্জন হে নীল সমুদ্রের পাতাল ঘোর বিষণ্ণ করো তোমাদের অন্ধকারে মৃত বিবেকের ছায়াটাই সম্বল কাঙাল শূন্য-বাতাসেই কড়া নাড়ে। শব্দ যখন শব্দকে খোবলায় দারুণ লজ্জা চেটে নেয় যত পাপ বাহারি সুখের স্বপ্নের আহ্বান তলিয়ে যাওয়ার সীমানাও মুছে যাক। পাপ যেমন নরকে মিশে যায় অমোঘ লীন হয় অসীমের নিঃশ্বাসে দৃষ্টির স্রোতে দিগন্ত ছলকায় সময় পার হয় পথিকের আশ্বাসে। বিষণ্ণ চোখে আগুণ খেলা করে আগুণের আছে নিজস্ব প্রতিশোধ ঝড়ের দাপটে শিবকে দোষী করো অতটাই তুমি অতটাই নির্বোধ।
একুশ এলে

একুশ এলে

মোঃ আরমান হিমেল  ফেব্রুয়ারির একুশ এলে, বিয়োগ স্মৃতি মনে পড়ে! বায়ান্নর সেই বীর শহীদের, মায়ের চোখে অশ্রু ঝরে! ফেব্রুয়ারির একুশ এলে, মনে বাজে করুণ সুর! ...