আগমনীর শুভ্রতায়

কমল কুজুর

শরতের আকাশে শুভ্র মেঘরাশি

চলে ভেসে দূর অজানায়,

যেতে যেতে কাশফুলের কোমলতায়

রাঙিয়ে দিয়ে যায় হৃদয় তোমার;

রাঙে সূর্য, রাঙে চন্দ্র –

হেসে ওঠে বিশ্ব চরাচর!

 

আমার দিন, আমার রাত্রিগুলো

আশাবরির বিস্তারে হয় পূর্ণ, ঝর্ণাধারার

অবিরত বয়ে চলার

মতোই বিষণ্ণতার বিষধর সর্প ধীরে

ধীরে করে কুক্ষিগত সমস্ত –

আধার আমার।

 

নূপুরের ঝংকার যেন তোমার মিষ্ট

স্বর, অম্লান অযুত বছরেও;

শোনার আকাঙ্খায় তাই তৃষিত

প্রান্তর! জগতের সমস্ত আঁধার

করতে দূর –

শরৎ সম্মিলনে দশভূজার আগমন

মেলাবে আবারো সেই মধুর সুর!

 

আগমনীর সুরে সুরে, তোমার ঘর

আলো করে তাই চাঁদের

হাসি, ভরিয়ে দেবে সারা সংসার;

আর রাঙাবে নূতন করে

হৃদয় আমার!

এই লেখাটি শেয়ার করুন

সম্পাদকের কথা

লেখালিখি ও সৃজনশীল সাহিত্য রচনার চেষ্টা খুবই সহজাত এবং আবেগের দুর্নিবার আকর্ষণ নিজের গভীরে কাজ করে। পাশাপাশি সম্পাদনা ও প্রকাশনার জন্য বিশেষ তাগিদে অনুভব করি। সেই প্রেরণায় ছাইলিপির সম্পাদনার কাজে মনোনিবেশ এবং ছাইলিপির পথচলা। ছাইলিপিতে লিখেছেন, লিখছেন অনেকেই। তাদের প্রতি আমার অশেষ কৃতজ্ঞতা। এই ওয়েবসাইটের প্রতিটি লেখা মূল্যবান। সেই মূল্যবান লেখাকে সংরক্ষণ করতে লেখকদের কাছে আমরা দায়বদ্ধ। কোন লেখার মধ্যে বানান বিভ্রাট থাকলে সেটির জন্য আন্তরিক দুঃখ প্রকাশ করছি। ছাইলিপি সম্পর্কিত যে কোন ধরনের মতামত, সমালোচনা জানাতে পারেন আমাদেরকে । ছাইলিপির সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ ।