জয়ন্ত মল্লিক এর দুটি কবিতা

জয়ন্ত মল্লিক এর দুটি কবিতা

জয়ন্ত মল্লিক

 

১.

অপরাজিতা

নিষিদ্ধতার উল্লাসে মেতে নিষিক্তের অভিলাষে–
নিষ্পাপ ধরিত্রীকে কলঙ্কিত করে;
তার উর্বরা গর্ভে রোপিলি  তোর অনুর্বরা বীজ-
এক অব্যক্ত চাপা যন্ত্রনা সয়ে যাওয়া ধরনীর তলপেটে —
একরাশ অনিচ্ছায় আর ঘৃনায়
সফল অঙ্কুরোদগম হলো তোর অনুর্বরা বীজের।

একদিন এই চারা মহীরূহ হয়ে পৃথিবীর ভার বাড়াবে আর একটা পাপে।
সে পাপ কেবলি তোর, হে পাপী!
ধরনী সেদিনও নিষ্পাপ, নিষ্কলুষ।

এক বুক ঘৃণায় ধরনী তার উদ্ধত্য আঙুলের ডগায়
যেদিন তোর পাপের হিসাব লিখবে,
এঁকে দিবে তোর জীবনের শেষ সীমায় মৃত্যুর দাগ;
তুই জেনে রাখিস- অপরাজিতা
আমি সেদিনই লিখবো প্রেমের কবিতা।।

 

২.

প্রতিবাদের হলুদ কেতন

পৃথিবীজুড়ে প্রতিবাদের কেতন উড়িয়ে
মঞ্চ কাপাচ্ছে মাইকে তির্যক টিউনে।
যেন সমস্ত অন্যায়ের স্তুপে এখনি অগ্নিসংযোগে ওরা এক কাতারে নামবে।

প্রতিবাদের হলুদ কেতন উড়িয়ে–
অত্যাচারীর বুকে বসিয়ে দেবে ক্ষুরধার খঞ্জর।
তার রক্তে লাল হবে মঞ্চের কার্পেট।

অত্যাচারিত মূর্খেরদল তখনো গিলছে
মেকি স্লোগানের গরল।
এ যেন সাগর মন্থনের অমৃত।
অমৃত গিলে মাতালের ন্যায় সুর মেলাচ্ছে স্লোগানে।

একটা সময়ে হাওয়ায় মিলিয়ে গেলো তির্যক টিউন।
যাদের হাতে প্রতিবাদের কেতন ছিলো;
তাদের হাতে জায়গা করে নিলো দগ্ধ কাঁচি।
গৃহ পরিচারিকার সামান্য কর্মজ্ঞানের অভাবে
একটা গ্লাস ভেঙেছে,সিরামিকের।
উদ্ধত হয়ে এগিয়ে গেলো কাঁচি
গ্লাস ভাঙার শোধ দিলো শরীরে কাঁচির দগ্ধ দাগে।
যন্ত্রনায় কাতর সে দগ্ধ ঘাঁ।

বিয়ারের চকচকে পেয়ালায় ঠোটের ছাপ এঁকে–
ঘাড়ে পশ্চিমা পারফিউম মেখে,
শয্যাসঙ্গীর কোমল উরুদেশে পায়ের অবস্থান।
সুগন্ধী ব্লাউজের নিচে মাথা নত করেছে প্রতিবাদ।

এতক্ষনে মূর্খেরদল ও বাড়ি ফিরে গেছে
পাকস্থলি ভরে নিয়েছে মেকি প্রতিবাদে মন্থিত অমৃত।।
শুধু আমি তখনো নির্বাক বসে আছি
প্রতিবাদের নিমজ্জিত কেতনতলে।

“বিনা অনুমতিতে এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ। কেউ যদি অনুমতি ছাড়া লেখা কপি করে ফেসবুক কিংবা অন্য কোন প্লাটফর্মে প্রকাশ করেন, এবং সেই লেখা নিজের বলে চালিয়ে দেন তাহলে সেই ব্যাক্তির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বাধ্য থাকবে
ছাইলিপি ম্যাগাজিন।”

সম্পর্কিত বিভাগ

পোস্টটি শেয়ার করুন

Facebook
WhatsApp
Telegram
বাইশে আগষ্ট

বাইশে আগষ্ট

জোবায়ের রাজু নোবেলকে এতটা বছর পর আজ এই বোটানিক্যাল গার্ডেনের বেে কালো চশমা পরে বসে থাকতে দেখে রাগে আর ঘৃণায় জ্বলতে থাকে শায়লা। এই সেই ...
হাওড়া ব্রিজের যে অলৌকিক ঘটনা কেউ জানে না | Howrah Bridge News | Horor Story

হাওড়া ব্রিজের যে অলৌকিক ঘটনা কেউ জানে না | Howrah Bridge News | Horor Story

হাওড়া ব্রিজের যে অলৌকিক ঘটনা কেউ জানে না | Howrah Bridge News | Horor Story    
জীবনানন্দের সিনেপসিস

জীবনানন্দের সিনেপসিস

আশিক মাহমুদ রিয়াদ  বরিশালে বৃষ্টি মানেই সৃষ্টির অন্য রূপ এসে ধরা দেয় প্রকৃতিতে। সারাদিনের ব্যস্ত সময়, বৃষ্টিস্নাত ভরদুপুরে এসে ঝিমিয়ে পড়ে নিছক কোন অযুহাতে। সেরকমই ...
বিপর্যয়ের অন্ধকারে ডুবতে বসেছে শ্রীলঙ্কা

বিপর্যয়ের অন্ধকারে ডুবতে বসেছে শ্রীলঙ্কা

ড. গৌতম সরকার   দক্ষিণ এশিয়ার দ্বীপরাষ্ট্র শ্রীলঙ্কা এক নজিরবিহীন সন্ধিক্ষণে উপস্থিত হয়েছে। দেশটির অবস্থা এই মুহূর্তে এতটাই খারাপ যে আশঙ্কা করা হচ্ছে আগামী দিনে ...
গল্প - হারু মাস্টার

গল্প – হারু মাস্টার

আরিফ জামান -“ওওও…হারু মাস্টের, যাও কই?” . অন্যমনষ্ক হয়ে হেঁটে যাচ্ছিলেন হারুন সাহেব।। অনিচ্ছাসত্ত্বেও অত্যন্ত বিরক্ত হয়ে ঘুরে তাকালেন রাস্তার পাশের চায়ের দোকানের দিকে। তাকানোর ...
এই মোহময় দিনে  [চারটি কবিতা]

এই মোহময় দিনে [চারটি কবিতা]

শাহান আলম ১. এই মোহময় দিনে— নীরবে তাকিয়ে দেখি; তোমার ঘুমন্ত মুখ। দেখি বিরহমেদুর বুকে সমুদ্রসফেনসহ ঢেউ ওঠে! দেখি ঢেউ ওঠে—তোমার কোমল ওষ্ঠে; যেন আসমানে ...