ভালোবাসার গল্প – পৃষ্ঠা ১৭

ভালোবাসার গল্প - পৃষ্ঠা ১৭

তাহারাত সিকদার

তখনো মেয়েটি হাত ছাড়েনি। খুব শক্ত করে টেনে ধরে রেখেছে। বাম হাত একটা পাক খেয়েছে কিন্তু কোনোভাবেই যেন ওদের আলাদা করা যাচ্ছেনা। পুরো শরীর টা মাত্র কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে নিস্তেজ হয়ে গেলো। শরীরটা একেবারে থেঁতলে দিয়ে চলে গেছে। আমার হাত থেকে চায়ের কাপটা পরে ভেঙে গেল। চা খানি গড়িয়ে রক্তে গিয়ে মিশেছে। তবুও রক্ত তার নিজের রঙে অটুট।

পৌনে একটা বেজে, রোজকার রুটিনে তাকিয়ে এখন আমার চা খাওয়ার সময়। কিছু মানুষ চা খাওয়া একদমি পছন্দ করেনা আবার কারোর কাছে এটা একটা নেশা। তবে আমার কাছে ব্যাচেলার জীবনের রুটিন মাত্র। জানিনা সবাই পছন্দ করে কিনা, তবে আমার এই মধ্য দুপরে চা খাওয়াটা বেশ ভালো লাগে। সুর্যের প্রচন্ড তাপে ঘামে ভেজা শরীরে রাস্তার ধুলো জমে একাকার। ঠিক সেই মুহূর্তে এক কাপ কড়া রং চা আদা লেবুর সাথে কাপ থেকে উঠতে থাকা ধোয়া, আহ ভাবতেই একটা ভালোলাগা এসে যায়।

পনেরো মিনিট ধরে বসে আছি কিন্তু এখনো দেখা পেলাম না। আজ হঠাৎ কি হলো? বড়োই অদ্ভুত ব্যাপার। এমন তো কখনো হয়নি। একটু দুশ্চিন্তায় পরে গেলাম।
ওরা আবীর, মায়া। মেডিকেলে পড়াশোনা করছে। রোজ একসাথে যাওয়াআসা। চোখে পরেছিলো দুজনের হাসি। যা থেকে ওদের পরিচয় আমার ডায়রিতে। কি কথা বলে, যে দুজনে দুজনের দিকে তাকিয়ে এত সুন্দর ভাবে হাসে? যদি ব্যাপার টা ধীরগতিতে উপস্থাপন করা যেতো তবে যেকেউ নেশাগ্রস্ত হয়ে যেতো। অবশ্য এই নেশাটা হলো ওদেরকে জানার কৌতুহল মাত্র। যা আমাকে ওদের সম্পর্কে জানতে খুবি আগ্রহী করেছিলো।
পৌনে একটা থেকে একটা। রোজ এই সময়টাতে কলনীমোর চায়ের দোকানে অপেক্ষা করলেই ওদের দেখা পাওয়া যায়। এইতো হাটতেছে খুব গল্পে বিভোর, দুজন কথা বলার মাঝে হেসেই চলেছে। ওদের ভাবনায় হয়তো চারপাশ শূন্যতায় মুখরিত। ইচ্ছে করছে আমিও ওদের গল্পে ডুবে যাই, খুঁজতে চাই হাসির রহস্য, বুঝতে চাই দুজনের চোখ কি বলে একে অপরকে। হয়তো লিখতাম তবে ওদের মনের গহীন ভাব।
নাহ।। ওদেরকে জানার কৌতুহল যেন দিনদিন বেড়েই চলেছে।

মামা চা ঠান্ডা হয়ে গেছে তো ৷ ভাবনায় ইতি টানলাম । আরে হ্যা তো। আসলে মামা একটু অন্য ভাবনায় চলে গেছিলাম আপনি আমায় আরেক কাপ চা বানিয়ে দিন। আর এই কাপ নিয়ে যান। হাতঘড়িতে তাকিয়ে ০১:১০ । (মামা চা নেন) ধন্যবাদ দিয়ে সামনে তাকাতেই আবীর মায়া। ঠিক রাস্তার ওপারে। বাহ ওরা সারাক্ষণ এইভাবে হাসতেই থাকে? ফুটপাত থেকে দুজনে নামলো। ওরা চা খাবে? বাহ ভালোই হবে। আজ তাহলে খুব কাছথেকে ওদের গল্প শুনতে পাবো। দারুণ মজা হবে আজ। ঠিক তখনি আবীরের উপর থেকে সম্পূর্ণ গতিবেগ নিয়ে একটা ট্রাক খুবি নমনীয়তায় চলে গেলো। মাত্র কয়েক সেকেন্ড সময় নিলো।

ছেলেটার হাত শক্ত করে ধরে রেখেছে। কাঁদছেনা। একফোঁটা জল নেই চোখে। আসবেনা কান্না। কিভাবে কাঁদবে, প্রাণ থাকতেও যার মনের মৃত্যু ঘটে তার কান্না আসবেনা।

চা আজ নিরানন্দে পরিপূর্ণ।
আর ছুঁবোনা তোমায়।

 

সদর, পিরোজপুর। 

“বিনা অনুমতিতে এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ। কেউ যদি অনুমতি ছাড়া লেখা কপি করে ফেসবুক কিংবা অন্য কোন প্লাটফর্মে প্রকাশ করেন, এবং সেই লেখা নিজের বলে চালিয়ে দেন তাহলে সেই ব্যাক্তির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বাধ্য থাকবে
ছাইলিপি ম্যাগাজিন।”

সম্পর্কিত বিভাগ

পোস্টটি শেয়ার করুন

Facebook
WhatsApp
Telegram
মায়াজাল- হিরন্ময় মন্ডল

মায়াজাল- হিরন্ময় মন্ডল

 হিরন্ময় মন্ডল সবুজের সমারোহে কোকিলের কোলাহলে একলা এক বুলবুলি উড়ে আসে এক বুক স্বপ্ন নিয়ে। বড় অপছন্দের পাখি, বড়ই নিম্নমানের তবু সবুজ আপন ভাবের ভাতি ...
ভালোবাসি

ভালোবাসি

মুহাম্মদ ফারহান ইসলাম নীল  তার নামে কবিতা লিখি স্বপ্ন বুনি চোখে ৷ তার বিরহ জ্বালায় অামার ব্যাথা বাড়ে বুকে ৷ বেলী ফুলের মালা গেঁথে তার ...
একটি দীর্ঘ কবিতা

একটি দীর্ঘ কবিতা

হুমায়রা বিনতে শাহরিয়ার আচ্ছা!জীবনের মানে কি? জন্মের পর হতে মৃত্যু পর্যন্ত- কিসের আশায় বড় হয়ে ওঠা? টাকার জন্যে? হয়তো! টাকায় তো কতো কি না হয়! ...
বর্ষা ফুলের গন্ধে

বর্ষা ফুলের গন্ধে

সুজন সাজু  জানলা দিয়ে দেখছি দূরে বিষ্টি পড়ে মিষ্টি সুরে প্রাণ কেড়ে নেয় আহা, ইমলি পাতার ঝিমলি নাচন দৃষ্টি নন্দন নাহা। বৃষ্টির ফোটা ঝম ঝমিয়ে ...
তুফান; শাকিব খান কতটাকা পেলেন? | Shakib Khan News | Toofan | Dushtu Kokil | Ami feshe jai Habib

তুফান; শাকিব খান কতটাকা পেলেন? | Shakib Khan News | Toofan | Dushtu Kokil | Ami feshe jai Habib

সারাদেশে দাপোটের সাথে চলছে শাকিব খানের নতুন সিনেমা। এতে শাকিব খানের বিপরীতে অভিনয় করেছেন ভারতের মিমি চক্রবর্তী ও বাংলাদেশের নাবিলা। এই সিনেমার স্পেশাল স্ক্রিনিং করা ...
কিভাবে মগ ডাকাতদের রাজধানী হলো ভোলা জেলা | Bhola District History

কিভাবে মগ ডাকাতদের রাজধানী হলো ভোলা জেলা | Bhola District History

ভোলা, বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চলের একটি সমৃদ্ধশালী জেলা, এ জেলার পাশ দিয়ে বয়ে গিয়েছে কালোবাঁদর, মেঘনা; যমুনা, ব্রহ্মপুত্রের মতো বাংলাদেশের উল্লেখযোগ্য সব নদী, শুধু কিন্তু তাই নয়। ...