কদম বৃক্ষ

অমিত মজুমদার 
কিছুদিনের জন্য ওপারে চলে যাও তুমি, চিন্তা কোরো না
দেশ স্বধীন হবার তিন দিন পর বিকেল ঠিক চারটেয়
এই কদম গাছের নিচে আমাদের দেখা হবে, চলে এসো
স্বাধীন দেশে আবার কদম ফুল তুলে দেবো তোমার হাতে
এরপরে তাদের প্রেম দেশপ্রেমে বদলে গেলো তৎক্ষনাৎ
মৃত্যু প্রতিমৃত্যুর শব্দকুসুম জুড়ে বেহুলা লখীন্দর খেলায়
অনেক গাঙুরের জল পেরিয়ে দেশ স্বাধীন হতেই যুদ্ধ শেষ হলো
তার তিন দিন পর বিকেল চারটেয় কেউ এলো না কদম তলায়
ছেলেটা শহীদ হয়েছে আর মেয়েটা নিজের দেশে ফিরে আসেনি
এমনটাই হবার কথা ছিলো, কিন্তু বাস্তবে সেটা একদম হয়নি
দীর্ঘ যুদ্ধের সমাপ্তি ঘটলে অনেক গাছের পা থেকে মাটি সরে যায়
তারা দু’জনেই ফিরেছিল, শুধু কদমগাছটা আর খুঁজে পায়নি কেউ
দেশ স্বাধীন হয়ে গেলে অনেক গাছের ঠিকানা বদলে যায়
যুদ্ধের সময় মুক্তিবাহিনীকে শত্রুর আড়াল করার অপরাধে
ভালোবাসার ফুল ফোটানো কদম শহীদের মর্যাদা পায় না কখনও
এই লেখাটি শেয়ার করুন

সম্পাদকের কথা

লেখালিখি ও সৃজনশীল সাহিত্য রচনার চেষ্টা খুবই সহজাত এবং আবেগের দুর্নিবার আকর্ষণ নিজের গভীরে কাজ করে। পাশাপাশি সম্পাদনা ও প্রকাশনার জন্য বিশেষ তাগিদে অনুভব করি। সেই প্রেরণায় ছাইলিপির সম্পাদনার কাজে মনোনিবেশ এবং ছাইলিপির পথচলা। ছাইলিপিতে লিখেছেন, লিখছেন অনেকেই। তাদের প্রতি আমার অশেষ কৃতজ্ঞতা। এই ওয়েবসাইটের প্রতিটি লেখা মূল্যবান। সেই মূল্যবান লেখাকে সংরক্ষণ করতে লেখকদের কাছে আমরা দায়বদ্ধ। কোন লেখার মধ্যে বানান বিভ্রাট থাকলে সেটির জন্য আন্তরিক দুঃখ প্রকাশ করছি। ছাইলিপি সম্পর্কিত যে কোন ধরনের মতামত, সমালোচনা জানাতে পারেন আমাদেরকে । ছাইলিপির সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *