টিপু সুলতান এর তিনটি কবিতা

টিপু সুলতান

অসমাপ্ত আয়োজন

সব বেদনার মতো খুঁড়ে চলেছ

টুক করে বড় হওয়া সামান্ত প্রাণ

বাদামি রং তরুণ পৃথিবীর নৈঃশব্দ্য

এইখানে পাতাভরা দিন গোনে

বৃক্ষ দাঁড়ায়ে,মাটি ও ঘাস শুয়ে-

হেমন্ত দুপুরে কুয়াশার বন্দে নদীটি,

বিরাণ প্রান্তরে ফিরে যায় প্রতিদিন

ঢেউয়ের মতো শাদা টুপি পরা

লোকারণ্য পাখি হাওয়ার অরণ্যদয়-

অসমাপ্ত কবিতা-প্রেম,কবিতার কবি!

শুক্রবার

তুমি শুক্রবার বুকে ধরে ঘুমায়ে আছো

অথচ এত কথা ছিল,ধূসর সন্ধ্যায়-

একজোড়া ঠোঁটের কাছে নোঙর ফেলে

অন্যকারো ঠিকরে পড়া আঙুলের ছায়া,

পরিস্কার চেনা যায়,বাইরে হৈম মিছিল

বিন্দু বিন্দু নক্ষত্র গান,নাগরিক নবান্ন;

কেবল প্ল্যাকার্ড পৃষ্ঠা ভরে দাঁড়িয়ে আছি

ধানতারা মাঠ হতে শহরে,তোমাকে চাই

*

ডানা খসানো জল শব্দ

একটা এভিনিউ মাঠ,শাদা কঙ্কালসার,নৃত্য করে

ভ্রুণের মতো;জরায়ু মুখ খুলে তাকাইয়াছে,প্রাণগুলো

মেঘ সন্তরণে-মৃদু বাতাস,কুমড়োফুলের ডগা

গর্ভকেশরে বাদামি রং,ধূসর কিনারে আত্মীয় পৃথিবী-

 

আমাদের দালানবাড়ির কাছে,সমাগুচ্ছ আকাশ

দুঠোঁট থেকে ঝাঁপিয়ে পড়ে

আপ্তডানা খসানো ত্রাতা ভাষা,রোদ কুয়াশার শব্দময়!

এই লেখাটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *