দুটি কবিতা

সুজিত রেজ
গোল্লা
__________
কুড়িয়ে নিলাম অনেক ফিরিয়ে দিলাম না কিছুই।
এই যে চিনেবাদাম তার খোসাটুকুও বাদ গেল না।
মনের মানুষ বলছে গভীরে
ফিরিয়ে দাও ফিরিয়ে দাও
অঝোর ধারায় বৃষ্টি বৃষ্টি
আমাকে ভেজাও আমাকে ভেজাও
এখন আমি  কী নিয়ে বাঁচি বলো?
আবেগের চোরা মুহূর্ত ছাড়া
জীবন তো কাগজের গোল্লা।

অপদী
____________
যখন আমার তিন পা তখন সাইকেল চাপা শিখেছিলাম।
এখন আমার পা নেই।
জলের মতো গড়িয়ে যাচ্ছি ঢালু কিনারের সঙ্গমে।

গ্যাসবেলনের আগুন জ্বালিয়ে সূর্য পোড়াচ্ছি।
কেদারডোমের চুড়ায় উঠে ছাইভস্ম মাখছি।
গর্ভবতী ছাপাখানায় অফসেট কাব্যির ভুজ্জি চড়াচ্ছি।
ঘুঁটের মতো নারীর কোমল হাতের স্পর্শ মাখছি।
সুগার ফ্রি মন নিয়ে খেজুর রস খাচ্ছি।

তালগাছ চড়ার অভিজ্ঞতায় জড়িয়ে ধরছি কণ্ঠী।
ওলন চেপে সিধে করছি বায়োডাটার মুখোশ।
আজানুলম্বিত হস্তে পটল পোড়াচ্ছি কাঁচা চর্বি ডলে।
চিল্কার ডলফিনের মতো খুলে ফেলছি বল্কল।
বুঝতে পারছি, অপদ সর্বত্র গতাগতি।

চুঁচুড়া, হুগলি, পশ্চিমবঙ্গ ।

এই লেখাটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *