লাশ ঘর

লাশ ঘর

মোঃ লিখন হাসান 

 

এ ঘর এমন একটা  ঘর

যেখানে রয়েছে আলো- আঁধার 

রয়েছে হালকা শীতল বায়ু।

এ ঘরে রয়েছে,বহু মানুষের ভালোবাসা

আছে হাজারো মানুষের ইচ্ছা আকাঙ্ক্ষা।

এ ঘরে দিন দুপুরে জানালা বয়ে আসে আলো

এ ঘরে কেঊ আসে না,

আসে শুধু জল্লাদ বাবু।

মাঝে মাঝে কারো খুঁজ পেয়ে যায় স্বজন

নিয়ে যায় দেহ করে দাফন।

এ ঘরের দরজা খোলার শব্দ,ভীষণ ভয়ানক

একলা ভিতরে আসার হয় না কারো সাহস।

সে ঘরের প্রত্যেক বিছানা তে আছে শুয়ে কিছু মানুষ।

ঘুমিয়ে আছে কিছু স্বপ্ন, কারো বা সাহস।

কেউ শুয়ে আছে বছর কয়েক ধরে,

নেউ খুঁজ ছেলে-মেয়ে বহু দূরে।

দেখি কেউ আবার চলে যায়,

সাদা কাপড়ে মুড়ে লাশ বাহী গাড়ি করে

কারো বা হয় দাফন বেওয়ারিশ বলে।

“বিনা অনুমতিতে এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ। কেউ যদি অনুমতি ছাড়া লেখা কপি করে ফেসবুক কিংবা অন্য কোন প্লাটফর্মে প্রকাশ করেন, এবং সেই লেখা নিজের বলে চালিয়ে দেন তাহলে সেই ব্যাক্তির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বাধ্য থাকবে
ছাইলিপি ম্যাগাজিন।”

সম্পর্কিত বিভাগ

পোস্টটি শেয়ার করুন

Facebook
WhatsApp
Telegram
রান্নাঘর 

রান্নাঘর 

 |হরেকৃষ্ণ দে   রোদজ্বলা পঁচারঙের খড়ের চালের ভেতর থেকে মুখ উঁচিয়ে আছে বাঁশের গুটিকয়েক বাতা পাশে দেয়াল ঘেষে লকলকে পাতা মেলা একটা গাঁদাল গাছ এটাই ...
একদিন করোনা শেষে

একদিন করোনা শেষে

Iমোস্তাফিজুর রহমান হিমেল   একদিন আধার রাতের অন্তিমে অভিশপ্ত করোনার শেষে, আমরা সবাই স্বাধীন বেশে  মুখে হাঁসি বুকে বল, করবো মোরা আলিঙ্গন।   লাঙ্গল কাধে ...
দেশকে ভালোবাসি

দেশকে ভালোবাসি

 হামিদা আনজুমান ব্রিটিশ রাজের অত্যাচারের জন্য ভীন দেশিদের তাড়িয়ে হই ধন্য। কিন্তু কপাল হায় কত যে মন্দ সাপের ফণা দম করে দেয় বন্ধ। পাক হায়েনা ...
মুজিব কোটি হৃদয়ে গাঁথা

মুজিব কোটি হৃদয়ে গাঁথা

গোলাম রব্বানী আকাশ ভেঙে পড়লো বজ্রপাতের আঘাতে আকাশের বুক বিজলির চমকের মতন খণ্ডবিখণ্ড হয়ে গেলো কোনো ভাবেই আকাশের পতন ঠেকানো গেলো না দালাল-বাটপার-বিশ্বাসঘাতক-প্রতারকের হাতে ভোর ...
জীবনানন্দ দাশকে মনে করে -গোলাম কবির 

জীবনানন্দ দাশকে মনে করে -গোলাম কবির 

 গোলাম কবির    ” ক্লান্ত প্রাণ এক, চারিদিকে জীবনের  সমুদ্র সফেন,  আমারে দু-দন্ড শান্তি দিয়েছিলো  নাটোরের বনলতা সেন! ”  এই যে সরল স্বীকারোক্তি করেছিলো  একসময়ের ...
অচিনপুরের দেশে: সপ্তম পর্ব

অচিনপুরের দেশে: সপ্তম পর্ব

গৌতম সরকার হেলথ সেন্টারটা গ্রামের উত্তর দিকে। এই গ্রামে সপ্তাহান্তিক যে হাট বসে, সেই হাটতলা পেরিয়ে যেতে হয়। মাঠ থেকে ফিরে খাওয়া-দাওয়া সেরে বেরোতে চাইছিলাম, ...