কবিতা- ” ওদের জীবনে সুন্দর সকাল আসে না কখনো “

তোমরা যখন সন্ধ্যা বেলায় হোটেলের লাল নীল আলো আঁধারিতে বসে গরম শিক কাবাব
অথবা গ্রীল কাবাবের স্বাদ নিচ্ছো বসে
গরম তন্দুর রুটি দিয়ে, ঠিক সেই সময়
একজন বস্তিবাসী মা পেটের দায়ে
ভাপা পিঠা আর চিতই পিঠার স্বাদ দিতে তোমাদের জন্য বানিয়ে যাচ্ছে অবিরাম, পাশেই তার কোলের শিশুটি উদাম গায়ে মায়ের উম পাবার জন্য চোখের পানি নাকের পানিতে হচ্ছে একাকার!
তোমরা যখন এই শীতের দিনে
দূরে কোথাও বেড়াতে বের হচ্ছো ক’দিনের শহুরে কোলাহল আর একঘেয়েমি হতে মুক্তি পাবার জন্য
দলবেঁধে অথবা পিকনিকে যাচ্ছো
অথচ তখন এই দেশেরই কিছু মানুষ
প্রবল শীতের তীব্রতা থেকে বাঁচার জন্য পাতা কুড়িয়ে, আবর্জনা জমা করে
খোলা জায়গায় আগুনের উত্তাপ নিতে গিয়ে কখনো বা পুড়ে গিয়ে জীবনকে জানাচ্ছে বিদায়! অথচ সবাই
একই শহরে বাস করো,
একই দেশের মানুষ,
একই ভাষায় কথা বলো,
সময় হলে সবাই ভোট দাও হাসি মুখে,
ভবিষ্যত সুখের আশায় স্বপ্ন দেখো
আগামী দিনের সুন্দর সকাল দেখবে বলে কিন্তু ওদের জীবনে সেই সুন্দর সকাল আর আসে না কখনো!

 

এই লেখাটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *