হেমন্তের নৈবেদ্য

মহীতোষ গায়েন

শরতে বেড়ে ওঠা আউশ-আমন হেমন্তের মাঠে মাঠে,  পরিপক্ক সোনালী ফসল খামারে তোলে স্বপ্ন-কৃষক… মহাজন হাঁক পাড়ে,এক আনার সাথে ছুঁড়ে দেয় পোড়া রুটি,নবান্নের নৈবেদ্যে এবার মহাজন ‘কাকবলী’ হোক।

মেলাতলা মাঠে ঘাটে ফোটে শিউলি,কামিনী,হিমঝুরি, বাউল গানের মেলায় খৈ,মোয়ার পসরা,শখের চুড়ি,মন দেওয়া নেওয়ার কালবেলা শুরু,হৈমন্তীর খোঁপায় শিউলি গুঁজে দেয় কলেজ পড়ুয়া কৃষক তরুণ,উৎসব রন্ধ্রে রন্ধ্রে।

নতুন চালের উৎসব নবান্ন এসে যায়,ফিরনি-পায়েশ বিতরণ হবে,’কাকবলী’ নৈবেদ্যে আত্মার পরিতৃপ্তি হবে, এই বাংলায় আসুক সুখের পরশ,অতীতের বারোমাস্যা  প্রাণ পাক,লোভ,লালসা,হিংসা যাক হেমন্তের নৈবেদ্যে।

এই লেখাটি শেয়ার করুন