এক গুচ্ছ প্রেমের কবিতা

এক গুচ্ছ প্রেমের কবিতা

গোবিন্দলাল হালদার 

রূপের চন্দ্রিমা

জোছনাও এসে ছুঁয়ে যায় অন্ধকার শরীর।
আমি ছোঁয়াকে ছুয়ে দিয়েছি অনেক দিন
আগে। ধবধবে আলোর উঠোনে পূর্ণিমা
রাতের স্বাক্ষী নিয়ে। সুস্থ বাতাসের ঢলে
এখনো ছোঁয়ার শরীর থেকে গন্ধরা আসে
আমার নাকের সীমানায়। অনুক্ষণ ডুবতে
থাকি পূর্বের সন্ধিক্ষণে। শুধু দূরত্বের জন্য
দৃষ্টিতে আঁকতে পারি না রূপের চন্দ্রিমা।

 

পাথর ভাঙা কষ্ট

অনুপস্থিত প্রহরে ভাবনার চোখে
যতবার দেখি তোমাকে ততবার আলোরা এসে
ফুটিয়ে তোলে তোমারই শিল্পী মুখের
মোনালিসা প্রতিকৃতি।

যতবার মিষ্টি চিন্তার জলে ভিজে যাই,ততবার
অনুভূতির সারগাম বুকে বেজে ওঠে কষ্টের বিউগলে
তখন বুকের অলিন্দ পাড়ায়
নিরামিষ আকাঙ্খারা চিরিত করে ওঠে।

চোখ ছোটে দিকবিদিকের দৃশ্য পর্দায়। মন ছোটে
মিলনের অভিপ্রায়ে। অস্থিরতা ডুবায় কষ্ট রঙে।
দূরে থাকলে যা হয়। নিকটে না থাকলে যা হয়।
পাথর ভাঙলেও সে কষ্ট খুঁজে পাবে না।

 

রমনী রোদ গায়ে মেখে

তুমি সময় নিয়ে এসো। আমাদের পানের বরজের পাশ
দিয়ে পূনরাবৃত্ত কথা চিবুতে চিবুতে এগিয়ে যাবো শাখা
আলুর খেত দিয়ে কলমি শাকের কাছে। যেখানে জোড়া
মুনিয়া চঞ্চু ঘোষে প্রেমালাপ করে। ঘন সারিতে দাঁড়ানো
ভুট্রো গাছের গোপন বাসরে লুকিয়ে গেলে জীবনানন্দের
দু’চোখে খুঁজে নিয়ো। দেখো,দেখো!ওই দূরে সুতো বিল
চিকচিক করছে আদুরে জল। গাব গাছের ডালে একটি
ধ্যানী মাছরাঙা প্রেম বউ মাছের আশে মৃন্ময় হয়ে বসে
আছে। বিলের শাপলা ফুলের মোহনীয় রূপে ডুব দিয়ে
বিকেলের রমনী রোদ গায়ে মেখে ওই দিগন্তের ইশারায়
কিছুটা সময়ের জন্য আমরা হারিয়ে যাবো,মনে মনে…

চরপাড়া,বেড়া,পাবনা, বাংলাদেশ

“বিনা অনুমতিতে এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ। কেউ যদি অনুমতি ছাড়া লেখা কপি করে ফেসবুক কিংবা অন্য কোন প্লাটফর্মে প্রকাশ করেন, এবং সেই লেখা নিজের বলে চালিয়ে দেন তাহলে সেই ব্যাক্তির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বাধ্য থাকবে
ছাইলিপি ম্যাগাজিন।”

সম্পর্কিত বিভাগ

পোস্টটি শেয়ার করুন

Facebook
WhatsApp
Telegram
‘সুখী দম্পতি’

‘সুখী দম্পতি’

তসলিমা নাসরিন  ইয়োহান অফিস থেকে ফিরেই সোফায় গা এলিয়ে টেলিভিশানের রিমোটটা হাতে নেয়। এ সময় গত দু’বছর যা হচ্ছে তা হয়, চাইলাই এসে হাসিমুখে তার ...
রক্তরস [চতুর্থ পর্ব]

রক্তরস [চতুর্থ পর্ব]

আশিক মাহমুদ রিয়াদ চৌকাঠ পেরিয়ে ঘরে ঢুকলেন মুসলেম উদ্দিন। সকালের আলো ফোঁটা শুরু করেছে। পাখি ডাকছে,আকাশের দিকে তাকালে এখনো অস্পষ্ট আধ ফালি চাঁদ দেখা যায়৷ ...
সাপ্তাহিক স্রোত - ২০ তম সংখ্যা

সাপ্তাহিক স্রোত – ২০ তম সংখ্যা

পিডিএফ ডাউনলোড করুন এখান থেকে
অচিনপুরের দেশে: চতুর্থ পর্ব

অচিনপুরের দেশে: চতুর্থ পর্ব

পাঞ্চালী মুখোপাধ্যায় ও গৌতম সরকার   (পাঞ্চালী মুখোপাধ্যায়) চায়ের প্রসঙ্গে চাবাগানের দেশের মানুষের চাপাতার কথা মনে পরে গেল। সব চায়েতেই কি লপচু বা মকাইবাড়ী তকমা ...
তিনটি প্রেমময় কবিতা

তিনটি প্রেমময় কবিতা

জয়ন্ত মল্লিক অরণ্যের রোদন আমার সমস্ত কথারা মরে গেলে- বাক্ জমিনে একটা গাছ পুঁতে দিও। কন্ঠ ফুঁড়ে শাখা-প্রশাখা মেলে দেবে আকাশের আহবানে,, তোমাদের শাণিত করাতের ...
গর্ভধারিনীর চোখে

গর্ভধারিনীর চোখে

জয়ন্ত দাস ওই ঘাতক হায়েনার দল আমাকে বাঁচতে দিল না, ওরা আমার নব অরূণোদয়,সদ্যজাত অঙ্কুরিত বীজকে সেই বর্বরোচিত কালরাতের মতো পিশাচের ন্যায় গলাটিপে হত্যা করেছে। ...