জীবনানন্দ দাশের সাহিত্য  – একটি সংক্ষিপ্ত বিবরণ | প্রবন্ধ

জীবনানন্দ দাশের সাহিত্য  – একটি সংক্ষিপ্ত বিবরণ | প্রবন্ধ

শিবশিস মুখোপাধ্যায়

 

জীবনানন্দের গ্রামীণ বাংলার কবিতা বাংলাদেশের রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক দৃষ্টিকোণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিল। তাঁর কবিতাগুলি বাঙালি জাতিসত্তার, বিশেষত 1960-এর দশকে এবং একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় গর্বিত করেছিল। তাঁর কবিতা কবিতার জীবনশক্তি হিসাবে বুদ্ধি প্রতিষ্ঠার জন্য সজ্জা বিরোধী বিদ্রোহের দিকে দৃষ্টি নিবদ্ধ করেছিল। মূলত কবি হলেও জীবনানন্দ প্রবন্ধ, ছোটগল্প ও উপন্যাস ও লিখেছিলেন। একজন উপন্যাসিক ও ছোটগল্প লেখক হিসাবে (অবশ্য তাঁর অনেক পুঁথির সন্ধানে তাঁর মৃত্যুর পরে) জীবনানন্দের অনন্য প্রতিভা উপলব্ধি হয়েছিল। মরণোত্তর প্রকাশিত এই উপন্যাস গুলিতে তিনি প্রায় দুই শতাধিক গল্প লিখেছিলেন। তাঁর ছোটগল্পের সংকলন জীবনানন্দদাশের গল্প, 1972। তাঁর সম্পূর্ণ রচনাগুলি কলকাতা থেকে জীবনানন্দসমগ্র (জীবনানন্দের সম্পূর্ণ রচনা, 1985-96) হিসাবে 12 খণ্ডে প্রকাশিত হয়েছে। তাঁর বিখ্যাত রচনা বনলতা সেন নিখিল বঙ্গ রবীন্দ্রসাহিত্য সম্মেলনে (অল বেঙ্গল রবীন্দ্রসাহিত্য সম্মেলন) একটি পুরষ্কার (1953) পেয়েছিলেন। জীবনানন্দ নিজেকে ঐতিহাসিক চেতনার কবি হিসাবে বর্ণনা করেছিলেন। ব্যাবিলন, নাইনভ এবং বিদিশার মতো প্রাচীন শহরগুলি তাঁর কবিতায় যেমন ইতিহাস থেকে এসেছে, যা বর্তমান থেকে দূরের বলে মনে হয় এবং এখনও তা অবহিত করে। জীবনানন্দ দাশের শ্রেষ্ঠ কবিতা 1954 সালে সাহিত্য একাডেমী পুরষ্কার জিতেছিলেন। বনলতা সেন তাঁর বিস্মৃত জাদুঘর ছিলেন এবং তার মুখ শ্রাবস্তীর ভাস্কর্যগুলি বহন করেছিল– ‘তার চুল বিদিশার প্রাচীন অন্ধকার, / শ্রাবস্তীর কোনও ভাস্কর্যের মুখোমুখি।এইভাবে, তার সৌন্দর্য সুন্দরী বাস্তবকে অতিক্রম করে মানুষের সামনে দাঁড়িয়ে কেবল সৌন্দর্যের রূপ হিসাবেই নয়, একটি নির্দিষ্ট পরিমাণে দূরের প্রান্তর, ইন্দ্রিয় এবং একটি  উপস্থিতি অবলম্বন হিসাবে  ডাকে

কবি স্পষ্ট করে দিয়েছেনদূর মহাসাগরের এক নাবিক, অলসহীন, হারিয়ে যাওয়া / যখন দারুচিনির স্রোতের মধ্য দিয়ে ঘাসের দ্বীপে ঘুরে দেখা যায়, / একটি সবুজ ত্রাণ।‘, কোনও স্বতন্ত্র পরিচয়ের মহিলার চেয়ে প্রিয়তে রূপান্তরিত বলে মনে হয়। গ্রিসিয়ান উরনের মতো, যেখানে কবি জন কিটস পরবর্তী সময়ের সাথে একটি আন্তঃ ব্যক্তিক যোগাযোগ মূলক সম্পর্ক ভাগ করে নিয়েছিলএবং উরনের সময়ে আটকে থাকা মুহুর্তের প্রতীক হিসাবে বনলতা সেন একই  অন্বেষণের অনুরূপ, অপ্রাপ্য আদর্শকে মোহিত করার চেষ্টা করার একই উদ্দেশ্য, যেখানে সৌন্দর্যসত্য, থেকে সত্যসৌন্দর্য, এটিই আপনি জানেনজীবনানন্দ দাশ জীবনের শেষ বছর নাগাদ ঠাকুর যুগের অন্যতম সেরা কবিহওয়ার প্রশংসা অর্জন করেছিলেন। বিভিন্ন রেডিও আবৃত্তি, কবিতা পাঠ এবং সাহিত্য সম্মেলনে তাঁর চাহিদা তীব্র আকার ধারণ করে। তিনি 1954 সালের মে মাসেসেরা কবিতাশীর্ষক একটি খণ্ড প্রকাশ করেছিলেন যা 1955 সালে সাহিত্য একাডেমী পুরষ্কার লাভ করে। জীবনানন্দের গ্রামীণ বাংলার কবিতা বাংলাদেশের রাজনৈতিক সাংস্কৃতিক দৃষ্টিকোণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিল। তাঁর কবিতাগুলি বাঙালি জাতিসত্তার, বিশেষত 1960 এর দশকে এবং একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় গর্বিত করেছিল। তাঁর কবিতা কবিতার জীবনশক্তি হিসাবে বুদ্ধি প্রতিষ্ঠার জন্য সজ্জাবিরোধী বিদ্রোহের দিকে দৃষ্টিনিবদ্ধ করেছিল। মূলত কবি হলেও জীবনানন্দ প্রবন্ধ, ছোটগল্প উপন্যাসও লিখেছিলেন। তাঁর জীবদ্দশায় জীবনানন্দই একমাত্র কবি ছিলেন যিনি অনুরোধে মাঝেমধ্যে সাহিত্য নিবন্ধ লিখেছিলেন। তাঁর মৃত্যুর পরেই বিপুল সংখ্যক উপন্যাস এবং ছোটগল্পের সন্ধান পেয়েছিল। থিম্যাটিক ভাবে, জীবনানন্দের গল্পের গল্পগুলি মূলত আত্মজীবনী মূলক। নিজস্ব সময়ের দৃষ্টিকোণ গঠন করে। কবিতায়, তিনি নিজের জীবনকে বশীভূত করার সময় এটিকে তাঁর কল্পকাহিনীতে আনতে দিয়েছিলেন। কাঠামোগতভাবে তাঁর কাল্পনিক রচনাগুলি লেখকের বর্ণনার চেয়ে সংলাপের ভিত্তিতে বেশি। তবে, তাঁর গদ্যগুলি যৌগিক বাক্যগুলির অনন্য স্টাইল, অনাবৃত শব্দের ব্যবহার এবং বিরামচিহ্ন গুলির একটি সাধারণ প্যাটার্ন দেখায়। তাঁর প্রবন্ধগুলি একটি ভারী গদ্য শৈলীর প্রমাণ দেয় এবং জটিল তবে জটিল বিশ্লেষণাত্মক বক্তব্য প্রকাশে সক্ষম। ফলস্বরূপ, তাঁর গদ্যগুলি খুব কমপ্যাক্ট ছিল, অপেক্ষাকৃত স্বল্প সময়ে গভীর বার্তা সহ।

 

  কলকাতা,পশ্চিমবঙ্গ,ভারত ।

“বিনা অনুমতিতে এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা কপি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ। কেউ যদি অনুমতি ছাড়া লেখা কপি করে ফেসবুক কিংবা অন্য কোন প্লাটফর্মে প্রকাশ করেন, এবং সেই লেখা নিজের বলে চালিয়ে দেন তাহলে সেই ব্যাক্তির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বাধ্য থাকবে
ছাইলিপি ম্যাগাজিন।”

সম্পর্কিত বিভাগ

পোস্টটি শেয়ার করুন

Facebook
WhatsApp
Telegram
কয়েকটি অণুগল্প

কয়েকটি অণুগল্প

আশিক মাহমুদ রিয়াদ  চাঁদনী উঠান চোখ জুড়ে দারুণ ঘুম নেমে আসে। আকাশের চাঁদ তখন মেঘের আড়ালে লুকিয়েছে৷ একটু আগেও কি সুন্দর ভরা জ্যোৎস্না ছিলো। সর্বনাশা ...
ছোটগল্প - পারুল

ছোটগল্প – পারুল

নাঈমুর রহমান নাহিদ ছগীর তার ভাঙ্গা গোয়াল ঘরটায় ঢুকে তার একমাত্র গরুটির বাঁধন খুলতে থাকে। পেছন থেকে তার চৌদ্দ বছরের মেয়ে শিউলি গামছা হাতে ছগীরের ...
ঝরে যাওয়া ফুলেরা

ঝরে যাওয়া ফুলেরা

জীবনের গল্প – লুনা রাহনুমা    “এই মুরগি আয়। ভাত খা, ডিমের তরকারিটা খা। আয় আয়।“ ঘরের দরজায় দাঁড়িয়ে উঠোনে ভাত ছিটান বিলকিস আক্তার। ডিম ...
বইয়ের REKKA কে টেক্কা দিতে পারলো ওয়েবসিরিজ?

বইয়ের REKKA কে টেক্কা দিতে পারলো ওয়েবসিরিজ?

পর্যালোচনা- আশিক মাহমুদ রিয়াদ [স্পয়লারথাকতেপারে] হুড়েঝুড়ে নেগিটিভ রিভিউ পড়ার পরেও বেশ ক্ষাণিকটা শক্তি আর ধৈর্য্য নিয়ে রবীন্দ্রনাথে খেতে গিয়েছিলাম। মানে ‘রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনো খেতে আসেননি’ ...
বিজয়ের গান

বিজয়ের গান

মহীতোষ গায়েন পৃথিবীর সব গাছ সব নদী,জলাশয়,মাঠঘাট, আকাশ আজও মুখরিত বিজয় বাংলাদেশ গানে। বাইগার নদী তীরে তাল তমাল,হিজলের শাখায় মুক্তির শিহরণ খেলে,সুর বয় ভাটিয়ালি মাঝির ...
ষোলোই ডিসেম্বর

ষোলোই ডিসেম্বর

বদ্রীনাথ পাল স্বাধীনতা নয় সহজ সরল কথা- পিছনেতে তার রয়েছে যে ইতিহাস, স্মরণে জাগায় মর্মে  মর্মব্যথা- কতো না দুঃখ, কতো না দীর্ঘশ্বাস। সন্তান হারা হয়েছে ...